কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে শ্রাদ্ধানুষ্ঠানে সংখ্যালঘু পরিবারের উপর হামলা : অনলাইনে সমালোচনার ঝড়

প্রকাশিত: 4:34 PM, February 7, 2016

12645170_1673145472961841_8817346316552239105_nনিউজ ডেস্ক : নাগেশ্বরীতে সংখ্যালঘু পরিবারের শ্রাদ্ধ অনুষ্ঠানে হামলা করে জমি দখলের চেষ্টা করেছে একদল সন্ত্রাসী। পরে এলাকাবাসীর প্রতিরোধে পালিয়ে যায় তারা।

শনিবার সকালে নাগেশ্বরী পৌরসভার ভগিরভিটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানা যায়, সকাল ১১ টায় পৌরসভার ভগিরভিটা গ্রামের ভুমিদস্যু ইব্রাহীম আলী, আ: মালেক, আ: করিম, মাইদুল ইসলামসহ প্রায় ১৫-২০ জন সন্ত্রাসী দেশিয় অস্ত্রসহ ওই এলাকার মৃত শেখর সেনের ছেলে সুনিলের বাড়ির উঠোনে তার মায়ের শ্রাদ্ধ অনুষ্ঠান আয়োজনের সময় অতর্কিতে উপস্থিত হয়ে মাতৃ দায়গ্রস্থ সুনিলকে মারধর করে এবং শ্রাদ্ধ মণ্ডপ তছনছ করে।

12705496_1673145459628509_5341052589403093147_n

এ সময় ভয়ে আমন্ত্রিত অতিথিরা পালিয়ে যায়। এরপর ইব্রাহীম বাহিনী সুনিলকে ছেড়ে দিয়ে বাড়ির পার্শ্ববর্তী তার পৈত্রিক ৪৫ শতক জমি জোরপুর্বক দখল নিতে গেলে এলাকাবাসীরা সংঘবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ করলে তারা পালিয়ে যায়।

পরে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পরবাসু সেন, সুকুমার সেন, সোবাহান আলী, কার্তিক সেন, দুলাল সেন, সাইদুল হোসেন, দীনেশ সেন, সন্তোষ সেন, দুলালসহ ওই এলাকার ভুক্তভোগী প্রায় দেড় শতাধিক পরিবারের অধিকাংশই জানায়, ভুমিদস্যু ইব্রাহীম আলী ও তার বাহিনী দীর্ঘদিন থেকে জাল দলিলের মাধ্যমে তাদের পৈত্রিক জমি দখল, মামলা, হত্যার হুমকিসহ বিভিন্নভাবে হয়রানি করে আসছে।

এ নিয়ে এলাকায় একাধিক শালিস বৈঠকে ইব্রাহীমকে সতর্ক করা হলেও তিনি তা কর্ণপাত করেননি।

এ বিষয়ে ইব্রাহীম আলীর সঙ্গে কথা হলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করেন।

নাগেশ্বরী থানার অফিসার ইনচার্জ আবু আককাছ আহম্মেদ বলেন, সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে সমালোচনার ঝড় । ফেসবুকে “নাজমুস সাকিব” নামে একজন লিখেছেন – “সংখ্যালঘু বুঝি না। এরা তো এই দেশেরই মানুষ। এই দেশেই তাদের জন্ম। তারা হিন্দু না মুসলমান এই প্রশ্ন উঠবে কেন?

অন্যায় তো অন্যায়ই। অন্যায় করা আর অন্যায় চোখ বুঝে সহ্য করা দুইটাই সমান অপরাধ।

সবার প্রতিবাদ করা উচিত। সংখ্যালঘু বলে নয়।

মানুষ হিসেবেই প্রতিবাদ করা চাই।”

আরেকজন লিখেছেন “বারবার কেন সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটছে । প্রশাসনকে প্রমাণ করতে হবে- তারা যতাযথ পদক্ষেপ নিযেছেন এবং দোষীদের গ্রেফতার করে উপযুক্ত শাস্তির আওতায় আনতে পেরেছেন” ।।

 

[the_ad id=”312″]

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 22 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ