বাংলা নববর্ষকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত শাবি

প্রকাশিত: 12:46 PM, April 13, 2016

বাংলা নববর্ষকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত শাবি
আজ ৩০ চৈত্র, ১৪২২ ঋতুরাজ বসন্তের শেষ দিন। রাত পেরুলেই ১লা বৈশাখ, ১৪২৩। বাংলা নববর্ষের প্রথম দিন। বাঙালি জাতির কাছে বাংলা বছরের প্রথম দিন মানেই উৎসব। সব বাধা বিপত্তিকে পেছনে ফেলে নতুনভাবে সবকিছুকে বরণ করে নেয়ার মহোৎসব।

বাঙালি যেন তার তার হারানো গৌরব ফিরে পায় এদিন। তারই বাস্তব রুপ মেলে সিলেটের সবোর্চ্চ বিদ্যাপিঠ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ে। চৈত্র সংক্রান্তি ও বাংলা বছরের প্রথম দিনকে উদযাপন করে নিতে পুরোদমে প্রস্তুত সবুজে ঘেরা এই ক্যাম্পাস।

মঙ্গল শোভাযাত্রা, দিনভর সাস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ঘুড়ি উড্ডয়ন, বর্ষপঞ্জি’র মোড়ক উন্মোচন, বৈশাখী মেলা, ফানুস উত্তোলনের মধ্য দিয়ে বাংলা বছরের প্রথম দিন উদযাপন করবে বিশ^বিদ্যালয় সংশ্লিষ্টরা।

প্রতিবছরের মতো এবারো নববর্ষ উপলক্ষে আলাদা করে কর্মসূচি হাতে নিয়েছে বিভিন্ন বিভাগ ও সংগঠন। সকাল সাড়ে নয়টায় বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে মঙ্গল শোভাযাত্রার মাধ্যমে শুরু হবে সারাদিনের বর্ণিল আয়োজন। ‘বাংলা বর্ষপঞ্জি-১৪২৩’ এর মোড়ক উন্মোচন করবে শাহজালাল বিশ^বিদ্যালয় প্রেসক্লাব। বাহারী খাবার নিয়ে বৈশাখী সাজে নিজস্ব স্টলও থাকছে শাবি প্রেসক্লাবের। ‘স্থাপত্যে বৈশাখ ১৪২৩’ শিরোনামে বর্ণিল আয়োজন করছে স্থাপত্য বিভাগ। বিশ^বিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে বিকেলে ঘুড়ি উৎসবের আয়োজন করেছে পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগ। শাহজালাল বিশ^বিদ্যালয় ফটোগ্রাফারস এসোসিয়েশন বৈশাখের প্রথম দিন উপলক্ষে আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের পক্ষ থেকে থাকছে দিনব্যপী মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

তবে ‘আজ মুক্তমঞ্চ’র পক্ষ থেকে ফানুস উত্তোলনের মধ্য দিয়ে চৈত্র সংক্রান্তি উদযাপিত হবে আজ। একাডেমিক ভবন ডি এর সামনে সন্ধ্যা সাতটা থেকে চৈত্র সংক্রান্তি উৎসব নিয়ে হাজির হবে আজ মুক্তমঞ্চ।

যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সে বিষয়ে সবোর্চ্চ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। পুলিশ প্রশাসনের সাথে নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে অধিকতর জোরদার করতে থাকবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাডেট কোর ও সম্মিলিত সংস্কৃতিক জোটের স্বেচ্ছাসেবীরা। এছাড়া সার্বিক পরিস্থিতি নজরদারির জন্য রয়েছে সিসি ক্যামেরা। বলেন সহকারী প্রক্টর সামিউল ইসলাম। তিনি আরো বলেন, ‘দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় এনে সকল অনুষ্ঠান সূচি বিকেল সাড়ে ৪ টার মধ্য সম্পন্ন করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে’।

বাঙালির জীবনে বছরে একবারই আসে সবাই মিলে আনন্দে মেতে উঠার এ উপলক্ষ। আর এদিন শাবি ক্যাম্পাস যেন হয়ে উঠে জীবন্ত। পুরো সিলেট শহর যেন ঢলে পড়ে এই বিদ্যাপিঠে। এতোদিন পহেলা বৈশাখ কাটিয়েছি বাড়িতে, তবে নিজের ক্যাম্পাসে এই প্রথম নববর্ষ উদযাপনের সুযোগ কোনোভাবেই মিস করতে চাই না এমনটিই জানালেন আইপিই বিভাগের নবীন শিক্ষার্থী মোশারফ হোসেন সুমন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 26 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ