নির্বাচনে বিক্ষিপ্ত গোলযোগ, নিহত ৭

প্রকাশিত: 8:21 PM, March 31, 2016

নির্বাচনে বিক্ষিপ্ত গোলযোগ, নিহত ৭

নিউজ ডেস্ক: বিচ্ছিন্ন সংঘর্ষ, ভোট বর্জন ও অনিয়মের অভিযোগের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় ধাপের ৬৩৯ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ সম্পন্ন শেষে চলছে গণনা। দলীয়ভাবে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত তৃণমূলের এ নির্বাচনে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

দিনব্যাপী নির্বাচনী সহিংসতায় সারাদেশে মোট ৭ জনের নিহত হওয়া খবর পাওয়া গেছে।

সকাল ৮ টায় ভোট শুরু হয়ে শেষ হয় বিকেল ৪ টায়। দ্বিতীয় দফায় নির্বাচনেও কারচুপির অভিযোগ করছে বিরোধী প্রার্থীরা।

ঢাকার কেরানীগঞ্জের হযরতপুর এবং যশোর সদরের চাঁচড়া ইউনিয়নে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সমর্থকদের গোলাগুলির মধ্যে প্রাণ গেছে এক শিশুসহ দুইজনের।

জামালপুরের মেলান্দহে কেন্দ্রের বাইরে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সময় ‘হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে’ এক যুবকের মৃত্যুর খবর দিয়েছে পুলিশ।

প্রার্থীদের সমর্থকদের সংঘর্ষে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে ভোলা সদরের রাজাপুর ইউনিয়নেও। সেখানে আহত হয়েছেন সাংবাদিকসহ অন্তত ২০ জন।

কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার আরিফপুর ইউনিয়নেও একটি কেন্দ্রের বাইরে গোলাগুলি হয়েছে ভোটের সময়; হামলা হয়েছে বিএনপির প্রার্থীর ওপর। আদ্রা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর চাচার বাড়ি থেকে ১৫টি হাতবোমা উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই প্রার্থীর ছেলেসহ ১৬ জনকে আটক করা হয়েছে।

যশোর সদরের চুড়ামনকাঠি ইউনিয়নের একটি কেন্দ্রে ব্যালট পেপারে সিল মারার জেরে তিন সদস্য প্রার্থী ও তাদের সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। আটক হয়েছেন সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তাসহ চারজন।

চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলায় ভোট গ্রহণ শেষে সহিংসতায় গুলিবিদ্ধ হয়ে তিন জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে পুলিশ।

এছাড়া সীতাকুণ্ডসহ বিভিন্ন উপজেলায় কেন্দ্র দখল করে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীর পক্ষে ভোট জালিয়াতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। অনিয়ম ও গোলযোগের কারণে অন্তত ১৮টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে বলে নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

এছাড়া ভোটের আগের রাতে যশোর সদরের লেবুতলা ইউনিয়নে ‘বোমা তৈরির সময়’ বিস্ফোরণে দুই যুবকের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন গোলযোগ ও অনিয়মের ঘটনা ঘটলেও নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে বলে দাবি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সকাল থেকে বিভাগওয়ারি ইউপি’র ভোটের খোঁজখবর নিয়েছেন চার নির্বাচন কমিশনার।

সার্বিক ভোট পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে নির্বাচন কমিশনার আবু হাফিজ বলেন, ‘‘আমরা মনিটরিং করছি। গণমাধ্যম, ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা ও নিজস্ব কর্মকর্তাদের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত ভালোভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।’’

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 17 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ