তনু হত্যা : দেশজুড়ে বিক্ষোভ, ডিসির ঘটনাস্থল পরিদর্শন

প্রকাশিত: 3:44 AM, March 26, 2016

তনু হত্যা : দেশজুড়ে বিক্ষোভ,  ডিসির ঘটনাস্থল পরিদর্শন

নিউজ ডেস্ক : কলেজছাত্রী সোহাগী জাহান তনু হত্যার বিচার দাবিতে সারা দেশে পালিত হয়েছে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ কর্মসূচি। এসব কর্মসূচি থেকে হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করে অবিলম্বে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানানো হয়েছে। হত্যাকারীদের শাস্তির দাবিতে রাজধানীর শাহবাগে গণসমাবেশ করেছে গণজাগরণ মঞ্চ। এতে মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার বলেন, নাট্যকর্মী তনু হত্যার বীভৎসতা দেখে পুরো জাতি স্তব্ধ। ক্যান্টনমেন্টের মতো একটি সুরক্ষিত এলাকায় যদি এমন বর্বরোচিত হত্যাকাণ্ড হতে পারে তাহলে দেশের নারীসহ গোটা জাতির নিরাপত্তা কোথায়? দুর্বৃত্তরা যখন দেশের জনগণের রক্তঘামের ৮০০ কোটি টাকা ব্যাংক থেকে লুট করে নিয়ে গেল তখন তনু হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটলো। ওই ঘটনাকে ধামাচাপা দেয়ার জন্য তনুকে হত্যার যোগসূত্র আছে কিনা তা জাতির মনে প্রশ্নের দানা বেঁধে উঠেছে। কারণ আমরা অতীতে দেখেছি, একটি ঘটনাকে অন্য একটি ঘটনা দিয়ে ধামাচাপা দেয়া হয়েছে। ইমরান এইচ সরকার আরও বলেন, দিনাজপুরের ইয়াসমিন হত্যার পর বর্তমান প্রধানমন্ত্রী রাস্তায় নেমে এসেছিলেন। তিনি খুনিদের কঠোর শাস্তি দাবি করেছিলেন। কিন্তু, তিনি এখন কেন নীরব? তনু হত্যার বিচার না হলে প্রধানমন্ত্রীকে জাতির কাঠগড়াই একদিন না একদিন জবাব দিতে হবে। ওই ঘটনার যেন বিচার না হয় এজন্য প্রশাসন সারা দেশে তনু হত্যার বিচারের দাবিতে যে সভা ও সমাবেশ হচ্ছে সেখানে বাধা দিচ্ছে। বাধা দিয়ে জনগণের আন্দোলনকে কোন গোষ্ঠি বন্ধ করতে পারেনি, পারবেও না। তিনি নারী ও শিশু ট্রাইব্যুনালকে আরও শক্তিশালী করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি আগামীকাল ২৬শে মার্চ শাহবাগে গণজাগরণমঞ্চ কর্তৃক ‘প্রতিবাদী গানের আসর’ এবং ২৭শে মার্চ কুমিল্লার জনগণের আন্দোলনের সঙ্গে সংহতি প্রকাশের জন্য শাহবাগ থেকে কুমিল্লার উদ্দেশ্যে রোডমার্চের কর্মসূচির ঘোষণা দেন। মানবাধিকার কর্মী খুশী কবীর বলেন, তনু হত্যাকারী যারাই হোক জাতি জানতে চায়। সেনানিবাস এলাকায় ওই ঘটনা ঘটলেও এর বিচার সিভিল আদালতে করতে হবে। বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক লাকি আক্তার বলেন, তনু হত্যার বিচার নিয়ে কোনো তালবাহানা হলে জনগণ সারা দেশে যে আন্দোলন শুরু করেছে তা আরও উত্তাল হয়ে উঠবে। তাই সরকারের যদি শুভ বুদ্ধি থেকে তাকে তাহলে ওই হত্যাকারীদের চিহ্নিত করে দ্রুত আইনের আওতায় আনতে হবে।
বাংলাদেশ উদীচী শিল্পী গোষ্ঠির সহ-সাধারণ সম্পাদক সঙ্গিতা ইমাম বলেন, তনু কোনো একজন নারী নয়। তিনি আমাদের বোন, সহকর্মী ও দেশের নাগরিক। তাকে সেইভাবেই দেখতে হবে। আজ তনুকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে, কিছুদিন পর অন্যজনকে একই কায়দায় হত্যা করা হবে। এভাবে চলতে দেয়া যায় না, চলতে দেয়া হবে না।
সমাবেশে এ সময় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফন্টের সভাপতি ইমরান হাবিব রুমন, শিল্পী তাহমিনা সুলতানা সাথী ও থিয়েটার কর্মী আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।
স্টাফ রিপোর্টার, কুমিল্লা থেকে জানান, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ছাত্রী-নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুর নির্মম হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তারসহ বিচার দাবিতে কুমিল্লা মহানগরে বিক্ষোভ, মানববন্ধন ও সভা-সমাবেশসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন অব্যাহত রয়েছে। গতকালও প্রতিবাদীরা নগরীর কান্দিরপাড় এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছেন। এদিকে ঘটনার ৫ দিনেও এ হত্যাকাণ্ডের কোনো রহস্য উদঘাটন হয়নি। ঘটনার ৫ দিন পেরিয়ে গেলেও গতকাল পর্যন্ত হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করতে পারেনি পুলিশ। এদিকে হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচার দাবিতে শুক্রবার কুমিল্লা সার্ভে ইন্সটিটিউটের বিক্ষুব্ধ ছাত্ররা নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে এবং বেলা ১১টার দিকে নগরীর কান্দিরপাড়ে সমবেত হয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। এ সময় বক্তব্য রাখেন ওই ইন্সটিটিউটের ছাত্র মোজাম্মেল হক, মিনহাজুল ইসলাম, রফিকুল হক, জুয়েলসহ ছাত্র নেতৃবৃন্দ। এদিকে শুক্রবার বিকালে নগরীর প্রাণকেন্দ্র কান্দিরপাড় এলাকায় তনু হত্যার বিচার দাবিতে হাজার হাজার ছাত্র-জনতা বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে। এতে বিকাল ৪টা থেকে প্রায় ২ ঘণ্টাব্যাপী নগরীতে যানবাহন চলাচল প্রায় বন্ধ হয়ে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়। সমাবেশে ক্যান্টনমেন্ট কলেজের শিক্ষার্থী, অবকাশ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন, সকল রোটার‌্যাক্ট ক্লাব (কুমিল্লা জোন), ভিক্টোরিয়া কলেজ থিয়েটার, সেন্টার ফর হিউম্যান অ্যাসিসটেন্ট ফাউন্ডেশন, রাজপথের প্রতিবাদী কণ্ঠ ব্যানারে বিভিন্ন সংগঠনের কয়েক হাজার নেতাকর্মী, শিক্ষার্থী বিক্ষোভ প্রদর্শন ও মানববন্ধন করে। তারা হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। আসামিদের গ্রেপ্তার ও বিচার না হওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবে বলে ঘোষণা দিয়েছে। তারা আসামিদের গ্রেপ্তার ও বিচার না হওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবে বলে ঘোষণা দিয়েছে। কুমিল্লার পুলিশ সুপার মো. শাহ আবিদ হোসেন জানান, জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। ঘটনাস্থল ও বিষয়টি খুব স্পর্শকাতর হওয়ায় পুলিশ সুনির্দিষ্ট তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করে সামনে এগুচ্ছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ময়নামতি পুলিশ ফাঁড়ির এসআই সাইফুল ইসলাম জানান, ঘটনার রহস্য উদঘাটনসহ আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশের জোর চেষ্টা অব্যাহত আছে।
তনু খুনের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক
মুরাদনগর (কুমিল্লা) প্রতিনিধি: একটু উঁচু জায়গায় জঙ্গল ও গাছগাছালির মধ্যে পড়েছিল সোহাগী জাহান তনুর রক্তাক্ত নিথর দেহ। গাছের তলায় ওর মাথা দক্ষিণ দিকে আর পা উত্তর দিকে। মাথার নিচটা থেঁতলানো আর পুরো মুখে রক্ত আর আঁচড়ের দাগ। দিনটি ছিল রোববার। সন্ধ্যা থেকে রাত, তবুও তনু টিউশনি থেকে বাসায় আসছে না। বাবা ইয়ার হোসেন অফিস থেকে বাসায় ফিরে শুনে তনু এখনো বাসায় ফিরেনি, কোথায় খুঁজতে যাবে তনুকে? এদিক ওদিক ছোটাছুটি, অন্ধকার ঘিরে ফেলছে চারদিক, তনুর বাবা ইয়ার হোসেন লাইট নিয়ে খুঁজতে থাকেন। সামনে একটি পুরাতন কালভার্ট, লাইট পরলো তনুর জুতাতে, তখন বুঝে গেলে তার মেয়ের সঙ্গে বড় কিছু ঘটে গেছে। একটু ডানে চোখ পড়তেই দেখেন তনুর মোবাইল। সামনে খুঁজতে খুঁজতে পাওয়া গেলা তনুর নিথর দেহ। এমন ভাবেই ঘটনার বর্ণনা দেন তনুর বাবা। তিনি আরও বলেন, আমার মেয়ে দুইটা টিউশনি করতো। সাড়ে চারটার দিকে যখন বেরুতো ওর মা আনোয়ারা বেগম এগিয়ে দিত। ফেরার পথেও ওর মা কিছু দূর গিয়ে নিয়ে আসত। ওই দিন তনু ওর মাকে বলেছিল, সে একাই আসতে পারবে। কিন্তু আমার মা আর ফিরে আসে নি। এদিকে বৃহস্পতিবার তনু হত্যার ঘটনায় ক্যান্টনমেন্ট অলিপুর এলাকার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক মো. হাসানুজ্জামান কল্লোল। এ সময় অতিরিক্ত জেলা ম্যজিস্ট্রেট (ভারপ্রাপ্ত), ক্যান্টনমেন্ট এক্সিকিউটিভ অফিসার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার (আদর্শ সদর) উপস্থিত ছিলেন। অপর দিকে বিকালে মুরাদনগর (কুমিল্লা)-৩ আসনের এমপি আলহাজ ইউছুফ আবদুল্লাহ হারুন মুরাদনগর উপজেলার মীর্জাপুর গ্রামের তনুর পিতা/মাতা ও ভাইদেরকে সান্ত্বনা দেন।
বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি জানান, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ছাত্রী নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুকে নৃশংসভাবে হত্যার প্রতিবাদে এবং হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে সিলেটের বিশ্বনাথে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সামাজিক সংগঠন ভিন্নধারার ব্যানারে গতকাল বিকালে স্থানীয় বাসিয়া সেতুর ওপর এ  কর্মসূচি পালন করা হয়। সংগঠনের সভাপতি সাংবাদিক ছালেহ আহমদ শান্তর সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বেগম স্বপ্না শাহিন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশ্বনাথ প্রেস ক্লাব সভাপতি আব্দুল আহাদ, সাবেক সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম খায়ের, সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশীদ মামুন। নাট্যকর্মী ফজল খানের পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাসিয়া নাট্য কল্যাণ সংস্থার সাবেক সভাপতি মাস্টার আমিনুল হক, বাউল সমুজ আলী, মানবাধিকার কর্মী শামছুল ইসলাম মুমিন, সংগঠক এসপি সেবু, রাজা মিয়া, বকুল আহমদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বন্ধুসভা সভাপতি প্রবীর কান্তি দে পিংকু, মাস্টার হোসাইন আহমদ শাহিন, সাংবাদিক এনামুল হক মামুন, জাহেদ আহমদ জেহিন, হাসান ওলীউর রহমান, শাহিদ আহমদ, আজাদুল ইসলাম বাদশা প্রমুখ।
ফরিদপুর প্রতিনিধি জানান, কুমিল্লার কলেজছাত্রী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুর হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সংস্কৃতি কর্মীদের ব্যানারে ফরিদপুর শহরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।  গতকাল বিকাল সাড়ে তিনটা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ফরিদপুর প্রেস ক্লাবের সামনের মুজিব সড়কে আধঘণ্টার মানববন্ধন কর্মসূচির সময় তারা মুখে কালো কাপড় বেঁধে মানববন্ধন করে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা মহিলা পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক শিপ্রা রায়, সম্পাদক খাদিজা বেগম মনি, বিনোদন নাট্য দলের সম্পাদক অঞ্চল সরকার, ফুল্‌কির সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল আজম প্রমুখ। মানববন্ধন থেকে তারা তনুর নৃশংস হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবি জানান।
মনিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি জানান, সোহাগী জাহান তনুর হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে যশোরের মনিরামপুরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকালে পৌরশহরের উপজেলা পরিষদ চত্বরে ঘণ্টা ব্যাপাী এই মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়।
নওগাঁ প্রতিনিধি জানান, তনুর ধর্ষন ও হত্যাকারীদের বিচারের দাবীতে নওগাঁয় যৌথভাবে মানববন্ধন করেছে ছাত্র ইউনিয়ন ও ছাত্র ফ্রন্ট। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শহরের মুক্তির মোড় প্রধান সড়কের পাশে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন পালিত হয়।  এতে নেতৃত্ব দেন জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক মিতালি প্রামানিক। এ সময় বক্তব্য রাখেন, ছাত্র ফ্রন্ট নেতা সজিব সরকার, জেলা কমিউনিষ্ট পার্টিও সাধারন সম্পাদক এ্যাড. মহশিন রেজা ও জেলা বাসদের সমন্বয়ক জয়নাল আবেদিন মুকুল। বক্তারা তনুর ধর্ষনপূর্বক হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার জোর দাবী জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 22 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ