‘প্রধান বিচারপতির বক্তব্য সরকারের গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রণের নীতিকে উৎসাহ যোগাবে’

প্রকাশিত: 6:41 AM, March 3, 2016

‘প্রধান বিচারপতির বক্তব্য সরকারের গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রণের নীতিকে উৎসাহ যোগাবে’

094846Mir-Kasem-Ali-(3)প্রান্ত ডেস্ক:গণমাধ্যমের বেশি স্বাধীনতা দেশের জন্য মঙ্গলজনক নয় প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার দেওয়া এমন বক্তব্য ক্ষমতাসীনদের গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রণের বেপরোয়া নীতিকে আরও সমর্থন ও উৎসাহ যোগাবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ।
বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএফইউজে’র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামসুদ্দিন হারুন ও মহাসচিব এম আবদুল্লাহ এবং ডিইউজে’র সভাপতি কবি আবদুল হাই শিকদার ও সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান এ মন্তব্য করেন।
বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতারা বলেন, বুধবার সিলেট জেলা আদালতে ডিজিটাল সাক্ষ্য গ্রহণ পদ্ধতির উদ্বোধনকালে প্রধান বিচারপতির দেওয়া বক্তব্য অনাকাঙ্খিত ও অনভিপ্রেত। এ ধরণের বক্তব্য ক্ষমতাসীনদের গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রণের বেপরোয়া নীতিকে সমর্থন ও উৎসাহ যোগাবে।
তারা বলেন, দেশের সাংবাদিক সমাজ বিচার বিভাগের স্বাধীনতার জন্য লড়াই-সংগ্রাম করেছে। আইনের শাসন, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা, গণতন্ত্র ও স্বাধীন গণমাধ্যম একে অপরের পরিপুরক। গণতন্ত্র ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা না থাকলে আইনের শাসন ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা যে বিপন্ন হয় তা বাংলাদেশে বার বার প্রমাণিত হয়েছে। সংবিধানের ৩৯ অনুচ্ছেদে সংবাদক্ষেত্রের স্বাধীনতার কথা বলা হয়েছে। কোন কোন ক্ষেত্রে আইনী বাধা-নিষেধ মেনে সংবাদমাধ্যম কাজ করবে তাও বলে দেয়া হয়েছে। চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতার নিশ্চয়তাও দেয়া হয়েছে শর্তহীনভাবে। সংবিধান স্বীকৃত এ স্বাধীনতা কোন পক্ষ থেকে বিঘ্নিত হলে সুরক্ষা দেয়ার দায়িত্ব সংবিধানের রক্ষক সর্বোচ্চ আদালতের।
তারা আরও বলেন, বর্তমানে দেশে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা মারাত্মক হুমকির মুখে। সত্য প্রকাশের দায়ে সম্পাদক ও সাংবাদিকদের কারাগারে নিক্ষেপ করা হয়েছে, জনপ্রিয় বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, সাংবাদিক হত্যা-নির্যাতন চলছে এবং গণহারে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। এহেন পরিস্থিতিতে প্রধান বিচারপতি গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা আমাদের বিস্মিত ও শঙ্কিত করে তুলেছে।
নেতৃবৃন্দ গণতন্ত্র ও স্বাধীন গণমাধ্যমের পক্ষে উচ্চ আদালতের ইতিবাচক ও বলিষ্ঠ ভ’মিকা প্রত্যাশা করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 12 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ