নেপালের অধিনায়ক বয়স চোর !

প্রকাশিত: 5:35 PM, February 2, 2016

নেপালের অধিনায়ক বয়স চোর !

বয়স চুরি করে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে খেলার গুরুতর অভিযোগ উঠলো নেপাল যুব দলের অধিনায়কের বিপক্ষে। নেপাল যুব দলের অধিনায়ক রাজু রিজালের বয়স কমপক্ষে ২৪/২৫ বছর বলে জানালেন তার সাবকে সতীর্থরাই। এমন কি, তিনি নিজের নাম পরিবর্তন করে নেপালের যুব দলে খেলছেন বলে অভিযোগ। তার প্রকৃত নাম রাজু শর্মা বলে জানা গেলো। এ বিষয়ে ভারতের ‘ক্রিকবাজ’ বড় একটি খবর প্রচার করেছে। সেখানে তারা জানিয়েছে, ২০০০ সালে উত্তর প্রদেশ থেকে কয়েকজন তরুণ মুম্বইয়ে নিয়ে যান। উদ্দেশ্য, নিজেদের প্রতিভার প্রমাণ দিয়ে বড় কোনো দলে সুযোগ পাওয়া। সেবার সাবেক ক্রিকেটার নওশাদ খান কয়েকজন ক্রিকেটারকে বাছাই করেন। তারমধ্যে একজন ছিলেন রাজু শর্মা। তার দারুণ উইকেট কিপিং ও ব্যাটিং দেখে মুম্বইয়ের অনূর্ধ্ব-১৫ দলে তাকে জায়গা করে দেয়া হয়। সেখানে রাজু শর্মার সতীর্থ ছিলেন ইকবাল আবদুল্লাহ, সুফিয়ান শেখ, জাভেদ খান, সিদ্ধার্থ প্রসাদ, রোকন শর্মা ও তন্ময় যাদব। এদের প্রত্যেকেই এখন ২৪/২৫ বছরের তাগড়া যুবক। অনেকেই খেলছেন ভারতের রঞ্জি ট্রফিতে। কিন্তু মুম্বইয়ে ভাল সুবিধা করতে না পেরে রাজুল শর্মা চলে যান নেপালে। সেখানে গিয়ে নজর কাড়েন। নাম পরিবর্তন করে রাখেন ‘রাজু রিজাল’। আর এই নামেই তিনি এখন বাংলাদেশে চলমান যুব বিশ্বকাপে নেপালকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। কিন্তু তার এই বয়স চুরির কথা ফাঁস করে দিলেন তাদের সাবেক সতীর্থরাই। ২০০০ সালে মুম্বাই অনূর্ধ্ব-১৫ ক্রিকেটে খেলা রাজুর সতীর্থ জাভেদ খান বলেন, ‘অবশ্যই তার (রাজু) তার বয়স অনেক বেশি। আমার স্পষ্ট মনে আছে, তার নেতৃত্বে আমি মুম্বইয়ে অনূর্ধ্ব-১৫ ক্রিকেট খেলেছিলাম। একই দলে খেলতো সুফিয়ানও।’ এছাড়া পাওয়ার নামের আরেক খেলোয়াড়ও রাজুর বয়স চুরির বিষয়টি ফাঁস করে দিলেন। তিনিও রাজুর সতীর্থ ছিলেন। পাওয়ার ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে বলেন, ‘মুম্বইয়ের হয়ে আমরা অনূর্ধ্ব-১৫ ক্রিকেট একসঙ্গে খেলেছি। আর এখন সে নেপালের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক! অথচ আমাদের সেই দলের সবার বয়স এখন ২৪/২৫ বছর। মুম্বইয়ে সে রাজু শর্মা ছিল কিন্তু এখন নেপালে সে রাজু রিজাল! প্লিজ, ক্রিকেট বাঁচান। কী লজ্জার কথা!’

 

 

[the_ad id=”312″]

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 19 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ