বাংলাদেশি শ্রমিক নিয়োগ প্রসঙ্গে স্পষ্ট করলো মালয়েশিয়া

প্রকাশিত: 6:29 AM, February 14, 2016

বাংলাদেশি শ্রমিক নিয়োগ প্রসঙ্গে স্পষ্ট করলো মালয়েশিয়া

109524_untitled_111282প্রান্ত ডেস্ক:মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিক নিয়োগের ব্যাপারে স্পষ্ট করলো দেশটির উপ প্রধানমন্ত্রী ড. আহমেদ জাহিদ হামিদি।
বাংলাদেশ থেকে নতুন ১৫ লাখ শ্রমিক নেয়ার বিষয়ে মালয়েশিয়ায় ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। সরকারি পর্যায়ে আগামী তিন মাসের মধ্যে এসব শ্রমিক নেয়ার কথা হলেও মালয়েশিয়ায় অনেকে বাংলাদেশি শ্রমিকদের বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তারা বলছেন, বাংলাদেশি শ্রমিকদের রয়েছে ভাষাগত সমস্যা। পরিচ্ছন্নতার বিষয়তো আছেই। এক্ষেত্রে ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপাইনের গৃহপরিচারিকারা অনেকটা দক্ষ বলে মন্তব্য করেছেন জোহর প্রদেশের চিফ মিনিস্টার মোহাম্মদ খালেদ নোরদিন। তবে নতুন শ্রমিক নেয়ার বিষয়ে সরকারের অবস্থান স্পষ্ট করলেন মালয়েশিয়ার উপ প্রধানমন্ত্রী ড. আহমেদ জাহিদ হামিদি। তিনি বলেছেন, এ বিষয়টিকে সার্বিক ব্যবস্থার ওপর ভিত্তি করে বিবেচনা করা উচিত। তার মতে, বাংলাদেশি শ্রমিক নেয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষিত হওয়ার পর সরকারের তীব্র সমালোচনা হচ্ছে। কিন্তু এসব শ্রমিক নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে নিয়োগকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে। আমরা শুধু বিদেশি শ্রমিকের চাহিদা পূরণে পদক্ষেপ নিয়েছি। এক্ষেত্রে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের চাহিদা পর্যালোচনা করা উচিত, যাতে দেশের অর্থনীতি উন্নত হয়। তার ভাষায়, সবার দেখা উচিত বিদেশি শ্রমিকের এই চাহিদা কোথা থেকে এসেছে। শনিবার এম.এ.ডি ভেলোসিফেরো মিনি স্কুটার উদ্বোধন করে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, এ সিদ্ধান্তের জন্য সরকারকে দায়ী করা উচিত নয়। কারণ, বিভিন্ন শিল্প কারখানায় শ্রমিকের সঙ্কট রয়েছে। সেসব কারখানা থেকে অধিক সংখ্যক বিদেশী শ্রমিকের চাহিদা দেয়া হয়েছে। যেহেতু মন্ত্রিপরিষদ চেয়ারম্যান বিদেশী শ্রমিক ও অভিবাসন বিষয়ক ইস্যুটি দেখছেন, সেহেতু আমি কারখানার এই চাহিদার বিষয়ে খুবই সচেতন। এ সিদ্ধান্তের মাধ্যমে মালয়েশিয়ানদের কাজের সুবিধায় কোন ব্যাঘাত সৃষ্টি হবে না। উপরন্তু মালয়েশিয়ানরা এসব খাতে কাজ করতে মোটেও আগ্রহী নয়। তাদের কাছে এসব কাজ নোংরা, ভয়াবহ ও জটিল। তিনি আরও বলেন, বিদেশি শ্রমিক নেয়ার দাবি করেছে ফেডারেশন অব মালয়েশিয়ান ম্যানুফ্যাকচারারস (এফএমএম)। তারা নতুন শ্রমিক নেয়ার আগে মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত বিদেশি অবৈধ শ্রমিকদের বৈধতার দাবি করেছে। এফএমএমের সদস্যরা মানব সম্পদ মন্ত্রণালয়, অভিবাসন বিভাগ ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে আরও বিদেশি শ্রমিকের চাহিদা দিয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 14 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ