‘আ.লীগের কেউ প্রভাব খাটালে সরাসরি আমাকে বলবেন’

প্রকাশিত: 9:38 AM, January 27, 2016

‘আ.লীগের কেউ প্রভাব খাটালে সরাসরি আমাকে বলবেন’

109524_untitled_111282প্রান্ত ডেস্ক:আওয়ামী লীগের কেউ যদি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কোন কাজে প্রভাব খাটায় এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করার আহ্বান জানালেন খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পুলিশ সপ্তাহ উপলক্ষে আজ বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এ কথা বলেন তিনি। পুলিশ বাহিনীর উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কখনো কারো অন্যায়কে প্রশ্রয় দেবেন না, সে যতো বড় প্রভাবশালীই হোক না কেন। নির্যাতিত মানুষের পক্ষে থাকবেন, জনকল্যাণে কাজ করবেন। প্রভাবশালী এবং দলের কেউ প্রভাব বিস্তার করে অন্যায়-অপকর্ম করতে চাইলে বা পুলিশকে ব্যবহার করতে চাইলে সরাসরি তাকে জানানোর পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরাসরি যোগাযোগের সে ব্যবস্থাও আমি রেখেছি। মানুষের আস্থা-বিশ্বাস বজায় রাখতে পুলিশকে সততা-নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করার আহ্বানও জানান প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা বলেন, জনগণের কল্যাণ, জনগণের মঙ্গলই আমাদের সরকারের মূল লক্ষ্য। আর সেটি করতে হলে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো রাখতে হবে। সে দায়িত্ব সার্বিকভাবে পুলিশের ওপরই পড়ে। পুলিশ যেন সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারে, সেজন্য তাদের সে ধরনের সুযোগ-সুবিধা থাকা দরকার। সরকার সেসব ব্যবস্থা করেছে। পুলিশ বাহিনীর কল্যাণে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কোথায় কি করতে হবে, সেটা আমরা জানি। তাই সরকারের কাছে কোনো দাবি করতে হয় না। দাবি ওঠার আগেই তা পূরণ করি। তিনি বলেন, দেশ ও জনগণের প্রতি গভীর মমত্ববোধে উদ্বুদ্ধ হয়ে বিএনপি-জামায়াত-শিবিরের সহিংসতা ও জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় ২০১৩ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ২৬ জন বীর সদস্য জীবন দিয়েছেন। যার মধ্যে ২১ জন পুলিশ সদস্য। আমি পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর শহীদ সদস্যদের বিদেহি আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। সরকার উৎখাতের নামে গত বছরের তিন মাস যে সহিংস কর্মকাণ্ড চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত, পুলিশ সে পরিস্থিতিও নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, পবিত্র সংবিধান, গণতন্ত্র, আইনের শাসন রক্ষার জন্য আপনাদের আত্মত্যাগ এক বিরল দৃষ্টান্ত। বাংলাদেশের জনগণ আপনাদের অবদান গভীর কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করবে। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং পরবর্তী বিভিন্ন আসনের উপ-নির্বাচন, চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন, তিনটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে অত্যন্ত সফলতার পরিচয় দেওয়ায় পুলিশ বাহিনীর সকলকে ধন্যবাদও জানান প্রধানমন্ত্রী। মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশকে আরো বেশি সক্রিয় হওয়ার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মাদক সমাজের সর্বস্তরের বহু পরিবার ধ্বংস হচ্ছে। মাদক নিয়ন্ত্রণে পুলিশকে আরো বেশি সক্রিয় ও বিশেষভাবে দৃষ্টি দিতে আহ্বান জানাচ্ছি।’ পুলিশদের ‘পুলিশ বিভাগ’ করার দাবি করার প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পুলিশ বিভাগ করলে তখন সবাই বিভাগ চাইবে। তখন আর সমন্বয় থাকবে না। এটা সত্যি যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অনেক বড় হয়ে গেছে। আমরা পরিকল্পনা করেছি এখানে কিছু ভাগ করা হবে। আরো সচিব দেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 13 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ