সিলেটে বিশ্বকাপ: থাকছে চার স্তরের নিরাপত্তা

প্রকাশিত: 6:28 AM, January 26, 2016

সিলেটে বিশ্বকাপ: থাকছে চার স্তরের নিরাপত্তা

49607প্রান্ত ডেস্ক:আগামীকাল ২৭ তারিখ থেকে বাংলাদেশে পর্দা ওঠছে অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের। ১৬ দলের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত এই বিশ্বকাপের ভেন্যুর তালিকায় আছে সিলেটের দুই স্টেডিয়ামও। সিলেট বিভাগীয় আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ৩টি এবং সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে হবে বিশ্বকাপের ২টি ম্যাচ। ২৮, ৩০ ও ১ ফেব্র“য়ারি ম্যাচগুলো হওয়ার কথা রয়েছে। বিশ্বকাপে সিলেটের এই ৫টি ম্যাচ নিয়ে নিরাপত্তার ছক আঁকছে পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি। চার স্তরের নিরাপত্তা নিশ্চিতে কাজ করছে তারা।
২৮ জানুয়ারি দুটি ম্যাচ দিয়ে অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের সিলেট পর্বের সূচনা হবে। সিলেট বিভাগীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে লড়াইয়ে নামবে পাকিস্তান ও আফগানিস্তান এবং সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে শ্রীলঙ্কা ও কানাডা। ৩০ জানুয়ারি বিভাগীয় স্টেডিয়ামে খেলবে শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান এবং জেলা স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে কানাডা ও পাকিস্তান। বিশ্বকাপের সিলেট পর্বের শেষদিন, ১ ফেব্রয়ারি সিলেট বিভাগীয় স্টেডিয়ামে লড়াইয়ে নামবে আফগানিস্তান ও কানাডা।
বিশ্বকাপের এই ডামাঢোলের জন্য পুরোদমে প্রস্তত হয়ে আছে সিলেট। সিলেটের দুটি ভেন্যুর প্রস্তুতিই প্রায় চূড়ান্ত। টুকটাক কিছু কাজ ছাড়া আনুষাঙ্গিক অন্যান্য সংস্কার কাজ প্রায় শেষ করা হয়েছে। বর্তমানে নিরাপত্তার বিষয়টিতেই সর্বোচ্চ জোর দেয়া হচ্ছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নিরাপত্তার অজুহাত দেখিয়ে অস্ট্রেলিয়া অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দল বাংলাদেশে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপ বর্জন করায় নিরাপত্তার বিষয়ে কঠোরভাবে দৃষ্টি রাখা হচ্ছে। ইতোমধ্যেই নিরাপত্তা বিষয়ে ঢাকায় দুই দফা বিশেষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।
ওই দুই বৈঠকে সারাদেশের যেসব ভেন্যুতে অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হচ্ছে, সেসব ভেন্যু এলাকার উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। কিভাবে বিদেশী দল, দর্শকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে, সেই পরিকল্পনাও ওই দুই বৈঠকে প্রণয়ন করা হয় বলে জানা গেছে।
সূত্র জানায়, সিলেটে জঙ্গি হামলা হতে পারে বলে খোদ অর্থমন্ত্রী, সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি ও মহানগর পুলিশ কমিশনার সা¤প্রতিক সময়ে সতর্কবাণী দেয়ায় বিশ্বকাপকে ঘিরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরো নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। এ লক্ষ্যে সিলেটে পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা মিলে দফায় দফায় বৈঠক করেছেন। সম্ভাব্য নিরাপত্তা ত্র“টির বিষয়ে ওইসব সভায় আলোচনা করা হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র আরো জানায়, বিশ্বকাপ চলাকালীন সময়ে সিলেটের দুই ভেন্যু, ক্রিকেটারদের হোটেল এবং বিমানবন্দর এলাকায় থাকবে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এজন্য মহানগর পুলিশের সাথে কাজ করার জন্য সিলেট জেলা পুলিশ থেকে অতিরিক্ত সহস্রাধিক পুলিশ সদস্য নিয়ে আসা হচ্ছে। বিশ্বকাপের ম্যাচ চলাকালীন সময়ে পোশাকধারী ছাড়াও সাদা পোশাকেও দায়িত্ব পালন করবেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। বিশেষ করে গ্যালারিতে দর্শক সেজে গোয়েন্দা সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন।
এবার বিশ্বকাপ চলাকালে প্রযুক্তির ব্যবহারের উপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হবে বলেও জানা গেছে। সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।
এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মোহাম্মদ রহমত উল­াহ বলেন, অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের জন্য সিলেটে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। ইতোমধ্যেই নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে ঢাকায় দুটি বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই সভায় আমিও ছিলাম।
তিনি বলেন, এবার সর্বাধুনিক কয়েকটি ইন্সট্রুমেন্ট আমরা ব্যবহার করবো। প্রযুক্তিগত সক্ষমতায়ও আমরা সমানভাবে এগিয়ে থাকতে চাই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 3 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ