সন্তান বিক্রি করে চুরির নাটক

প্রকাশিত: 9:05 AM, January 20, 2016

সন্তান বিক্রি করে চুরির নাটক

109524_untitled_111282প্রান্তডেস্ক:ফেনীতে মাত্র ৩০ হাজার টাকার লোভে নিজের বুকের সন্তানকে বিক্রি করে বাচ্চা চুরির নাটক সাজিয়েছেন মুরছেনা বেগম নামে এক নারী।
তিনি ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার মোহাম্মদ সেলিম নামে এক ব্যক্তির কাছে আট মাসের ছেলে মেহেদী হাসানকে বিক্রি করে দেন।
মুরছেনা একই উপজেলার পাঠান নগর ইউনিয়নের মধ্যম শিলুয়া গ্রামের প্রবাসী জসিম উদ্দিনের স্ত্রী।
মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ছাগলনাইয়া ও ফেনী মডেল থানা পুলিশের যৌথ প্রচেষ্টায় ছাগলনাইয়ার নাছিরা দিঘী এলাকার সেলিম নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।
এরআগে সোমবার দুপুর ২টার দিকে ফেনী আধুনিক সদর হাসপাতালের বহির্বিভাগ থেকে শিশুটি চুরি হয় বলে অভিযোগ করেন মুরছেনা। এসময় তার চিৎকার শুনে পুলিশ এসে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। জিজ্ঞাসাবাদে একেক সময় একেক রকম তথ্য দেয়ায় পুলিশের সন্দেহ হয়। এর ওপর ভিত্তি করে মুরছেনার মোবাইল ফোন ট্র্যাক করে বাচ্চা চুরির আসল রহস্য উদঘাটন করে পুলিশ।
প্রকৃত ঘটনা হলো, বাচ্চাটি চুরি হয়নি, মা মুরছেনা বেগমই ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে বাচ্চাটিকে সেলিমের কাছে বিক্রি করে চুরির নাটক সাজান।
মঙ্গলবার রাতে ছাগলনাইয়ার নাসিরা দিঘী এলাকা থেকে সেলিমকে আটক করে তার কাছ থেকে বাচ্চাটি উদ্ধার করে পুলিশ।
আটক সেলিমের বাড়ি ছাগলনাইয়া উপজেলার শান্তির হাট এলাকায়। তিনি ছাগলনাইয়া পৌর শহরের নুর আহম্মদ ফিলিং স্টেশনে কাজ করেন।
ফেনী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) শাহীনুজ্জামান জানান, সেলিম বলছে বাচ্চাটি তিনি কিনেছেন।
শিশুটির মা মুরছেনার দাবি, তিনি বাচ্চা বিক্রি করেননি। তাকে প্রলুব্ধ করে সেলিম বাচ্চাটি নিয়ে গিয়েছিলেন।
ওসি আরো জানান, জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্তের পর এ বিষয়ে আরো অনেক তথ্য বেরিয়ে আসতে পারে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 7 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ