প্রক্রিয়াজাত ও রফতানির ওপর বেশি গুরুত্ব দিন: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: 9:35 AM, January 13, 2016

প্রক্রিয়াজাত ও রফতানির ওপর বেশি গুরুত্ব দিন: প্রধানমন্ত্রী

109524_untitled_111282প্রান্তডেস্ক: মাংস-দুগ্ধ, মৎস্য-প্রাণিজ আমিষসহ কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি এসবের প্রক্রিয়াজাত, পণ্য বহুমুখীকরণ করে বিদেশে রফতানির ওপর বেশি করে গুরুত্ব দিতে উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার সকালে রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে কৃষকদের মধ্যে ঋণ বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশকে দুধে স্বয়ংসম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে দুগ্ধ উৎপাদন ও কৃত্রিম প্রজননখাতে গ্রহীতা পর্যায়ে দুই ২০০ কোটি টাকার ঋণ বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। কেবল ৫ শতাংশ সুদে এসব ঋণ দেওয়া হচ্ছে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত কয়েকজন ঋণ গ্রহীতার হাতে চেক তুলে দিয়ে বিতরণ কাজের সূচনা করেন। প্রধানমন্ত্রী ঋণের টাকা যথাযথভাবে কাজে লাগাতে গ্রহীতাদের প্রতি আহ্বান জানান। মাংস উৎপাদনের দিকে বিশেষভাবে দৃষ্টি দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, অনেক মুসলিম দেশ আছে যারা বাইরে থেকে মাংস আমদানি করে। আমরা মাংস উৎপাদন বাড়িয়ে হালাল মাংস রফতানি করতে পারি। উৎপাদন বৃদ্ধি, উন্নত সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণে সরকার গবেষণার ওপর জোর দিয়েছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের লক্ষ্য এখন দেশের মানুষের পুষ্টি নিশ্চিত করা। শেখ হাসিনা বলেন, এদেশের মানুষের উন্নয়নে সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছে। আমরা কৃষকদের সব রকম সুযোগ-সুবিধা দিয়েছি। একটা সময় ওয়ার্ল্ড ব্যাংক আমাদের বলেছিল- কৃষকদের ভর্তুকি দেওয়া যাবে না। কিন্তু আমরা বলেছি এই ভর্তুকি নিজস্ব অর্থায়নে দেবো এবং তা দিয়েছি। শুধু তাই নয় বর্গা চাষীদের বিনা জামানতে অল্প সুদে কৃষি ঋণ দিতে শুরু করি আমরাই। তিনি বলেন, আমরা দেশকে এমনভাবে গড়ে তুলতে চাই যেন বাইরে থেকে কিছু আনতে না হয়। আমরা যদি কাজ করে যাই তবে দেশের উন্নয়ন করতে পারবো উল্লেখ করে শেখ হাসিনা আরও বলেন, তাই তো কাজ করে যেতে হবে। ইতোমধ্যে মাছের উৎপাদন বাড়িয়েছি, জয় করা বিশাল সমুদ্রসীমাকেও কাজে লাগাতে হবে। আমাদের লক্ষ্য ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করবো এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে উঠবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 11 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ