ময়ূরপঙ্খি ও মেঘদূত উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: 8:18 AM, January 12, 2016

ময়ূরপঙ্খি ও মেঘদূত উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

hhhপ্রান্তডেস্ক:বাংলাদেশ বিমানের নিজস্ব উড়োজাহাজ ময়ূরপঙ্খি ও মেঘদূতের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মঙ্গলবার সকালে প্রধানমন্ত্রী এ উড়োজাহাজ দুটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন। নতুন এ উড়োজাহাজ দুটি গত মাসে ঢাকায় আসে। বিশ্বখ্যাত বোয়িং কোম্পানির কাছ থেকে উড়োজাহাজ দুটি কেনা হয়েছে।
বিমান বাংলাদেশ এয়ালাইন্সের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বোয়িং ৭৩৭-৮০০ মডেলের উড়োজাহাজ দুটি এখন বিশ্বের সেরা এয়ারক্রাফট। উড়োজাহাজ দুটির নামকরণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে। এর আগে বিমান বহরে যোগ হয়েছিল বোয়িং কোম্পানির আরও ৪টি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর উড়োজাহাজ। ওই চারটি উড়োজাহাজের নামও দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নিজে। এগুলোর নাম হলো যথাক্রমে পালকি, অরুণ আলো, রাঙাপ্রভাত ও আকাশ প্রদীপ।
রাষ্ট্রায়ত্ত এ বিমান সংস্থার পক্ষ থেকে আরও বলা হয়, বিশ্বসেরা বোয়িং কোম্পানির নিজস্ব ৬টি ব্র্যান্ড নিউ উড়োজাহাজ এখন বিমানের বহরে আছে। বর্তমান সরকারের আমলে আরও ৪টি নতুন ড্রিমলাইনার যুক্ত হবে বিমান বহরে। এটা সম্ভব হলে বিমান হবে স্বপ্নের এয়ারলাইন্স। আগামী ৬ মাসের মধ্যে বিমানের গ্রাউন্ড সার্ভিসে বিদেশি পার্টনার সংযোগ হবে। এরপর আর লাগেজ হ্যান্ডলিংয়ে যাত্রী দুর্ভোগ থাকবে না। এয়ারক্রাফট হ্যান্ডলিংয়েও বিমান হবে আন্তর্জাতিক মানের। সিডিউল অন টাইম করার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। গত বছর রেকর্ডসংখ্যক ১৭ লাখ যাত্রী পরিবহন করেছে বিমান। তাতে লাভের অঙ্ক দাঁড়িয়েছে ২৭১ কোটি টাকা। আগামী বছর এই লাভ ৫শ’ কোটি টাকা ছাড়ানোর টার্গেট রয়েছে এই সংস্থাটির।
অনুষ্ঠানে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, বিমান পরিচালনা পর্ষদ চেয়ারম্যান এয়ার মার্শাল জামাল উদ্দিন আহমেদ ও বিমানের ভারপ্রাপ্ত সিইও উইং কমান্ডার (অব.) আসাদুজ্জামানসহ বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয় এবং বিমানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 7 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ