সারাদেশে ৬.৮ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত, আহত ৭

প্রকাশিত: 4:56 AM, January 4, 2016

সারাদেশে ৬.৮ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত, আহত ৭

police1450376982প্রান্ত ডেস্ক:রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে শক্তিশালী ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। সোমবার ভোর ৫টা ৫ মিনিটের দিকে এ ভূকম্পন অনুভূত হয়। রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্র ছিল ৬ দশমিক ৮। এর উৎপত্তিস্থল ছিল ভারতের মণিপুরের রাজধানী ইমপাল থেকে ৩৩ কিলোমিটার পশ্চিম উত্তর-পশ্চিম এবং ঢাকা থেকে ৩৫১ কিলোমিটার পূর্ব উত্তরে। পূর্ব ভারত-মিয়ানমার সীমান্তের কাছাকাছি এলাকায়। উৎপত্তিস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠের ৩৫ কিলোমিটার গভীরে। প্রাথমিকভাবে এ তথ্য জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের জিওলজিকাল সার্ভে (ইউএসজিএস)। রাজধানী ঢাকা ছাড়াও ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, সিলেট, বগুড়াসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ভূমিকম্পের খবর পাওয়া যাচ্ছে। এখন পর্যন্ত কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া না গেলেও রাজধানীসহ সারা দেশে যেসব এলাকায় কম্পণ অনুভূত হয়েছে, সব জায়গায় মানুষ আতঙ্কিত হয়ে সড়কে বেরিয়ে এসেছে। ভূমিকম্পের সময় আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ে সারাদেশের ঘুমন্ত মানুষ। রাজধানীবাসীর বেশিরভাগই বাসার ছাদে কিংবা রাস্তায় নেমে যায়। এখন পর্যন্ত পাওয়া খবরে জানা গেছে, ভূমিকম্পে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সাত শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ঢাবির সূর্যসেন হলের দুই জন, জসিম উদ্দীন হলের দুই জন, বঙ্গবন্ধু হলের দুই জন ও জিয়া হলের একজন। তারা সবাই আতঙ্কগ্রস্ত অবস্থায় ভবন থেকে নিচে নামতে গিয়ে আহত হন। তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সর্বশেষ গত ২৫ এপ্রিল অনুভূত হওয়া ভূমিকম্পে ঢাবির ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে ফাটল দেখা দেয়। এদিকে কুমিল্লা থেকে জানা গেছে, কুমিল্লা নগরীর মসজিদে তখনই ফজরের আযান হয়নি। অধিকাংশ লোক তখনও গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন। হঠাৎ চারদিকে মানুষের আর্ত-চিৎকার। বাসা-বাড়ি থেকে মানুষ রাস্তায় নেমে আসে। শক্তিশালী ভূমিকম্পে সোমবার ভোর প্রায় ৫টা ৫ মিনিটে সারা দেশের ন্যায় কুমিল্লাও কেঁপে উঠে। কয়েক সেকেন্ডে স্থায়ী ওই ভূমি কম্পনের ফলে মানুষের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। বিশেষ করে নগরীর বহুতল ভবনের বাসিন্দারা ভয়ে আতংকিত হয়ে ভবন থেকে নীচে রাস্তায় নেমে আসে। এদিকে ভূমিকম্পনের ফলে এখনো কুমিল্লার কোন ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। আজ সোমবার ভোর ৫টা ৫ মিনিটে চুয়াডাঙ্গা জেলার সর্বত্র ও এর আশপাশ এলাকায় শক্তিশালী ভূ-কম্পন অনুভূত হয়েছে। এই ভূ-কম্পনের স্থায়ীত্ব ছিল ৫ থেকে ৭ সেকেণ্ড। এ অবস্থায়, এই জনপদের ঘূমন্ত অনেক মানুষ জেগে ওঠে এবং ঘর-বাড়ি থেকে দ্রুত বাইরে ফাঁকা স্থানে গিয়ে আশ্রয় নেয়। ভোর পর্যন্ত ক্ষয়ক্ষতির কোন খবর জানা জানা যায় নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 13 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ