বাংলাদেশের জন্ম হয়েছে মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য, লংঘনের জন্য নয় ….প্রফেসর ড. মিজানুর রহমান

প্রকাশিত: 11:44 AM, December 28, 2015

বাংলাদেশের জন্ম হয়েছে মানবাধিকার  প্রতিষ্ঠার জন্য, লংঘনের জন্য নয়     ….প্রফেসর ড. মিজানুর রহমান

DSCF8011ওসমানীনগর (সিলেট) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা: জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মিজানুর রহমান বলেছেন, যারা মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তুলে এবং শহীদ বুদ্ধিজীবিদের নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করে তাদের এদেশে রাজনীতি করার কোন অধিকার নেই। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ নামক রাষ্টের জন্ম হয়েছে মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য, লংঘনের জন্য নয়। তাই মানবাধিকার লংঘনকারীদের স্থান এদেশে হতে পারে না। গতকাল রবিবার সন্ধ্যায় সিলেটের ওসমানীনগরের দয়ামীর ইউপির উদ্যোগে এবং জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সহায়তায় আয়োজিত ‘‘মানবাধিকার রক্ষা ও নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে গণজামায়েত’’ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তৃতা কালে এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, ১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিল মুজিবনগর সকারের গৃহিত স্বাধীনতার ঘোষণা পত্রে বাংলাদেশের জনগণের জন্য সমতা, সামাজিক ন্যায় বিচার ও মানব সত্ত্বার মর্যাদার কারণে মুক্তিযুদ্ধে অবতীর্ণ হওয়ার কথা স্পষ্ট করে উল্লেখ ছিল। তাই স্বাধীনতার মূল্যবোধ মানেই জনগণের সমতা, সামাজিক ন্যায় বিচার ও মানব সত্ত্বার মর্যাদা।
দয়ামীর ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল হাই মশাহিদের সভাপতিত্বে এবং মতিন মিয়া, সেবুল আহমদের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ওসমানীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শওকত আলী, যুক্তরাজ্যের লন্ডন সিটির সাবেক মেয়র মুজিবুর রহমান, এডভোকেট মুজিবুল হক ও তদন্ত ওসি অকিল উদ্দিন। বক্তব্য রাখেন প্রবাসী ফয়েজুর রহমান ফয়েজ, ইউপি সদস্য আহমদ আলী। অনুষ্ঠান শেষে মিজানুর রহমান দয়ামীরস্থ এসওএস শিশুপল্লী পরিদর্শন করে সেখানে অবস্থানরত শিশুদের খোঁজখবর নেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপস্থিত ছিলেন সমাজসেবি হিরন মিয়া, ফারুক মিয়া, রইছুর রহমান, মইন উদ্দিন লেচু, মকবুল আলী, ছিদ্দেক আলী, ওসমানীনগর প্রেস ক্লাবের সভাপতি এম এফ আলী ফয়েজ, সাধারণ সম্পাদক জুবেল আহমদ সেকেল, মানবাধিকার কর্মি আবু হানিফা, এস এম সোহেল, শামিম আহমদ, আব্দুল হক, সাব্বির আহমদ, ছিদ্দেক আলী, ও এহিয়া আহমদ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 44 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ