পৌর নির্বাচন অবাধ-সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হবে: শ্যানন

প্রকাশিত: 5:13 AM, December 15, 2015

110227Atok-11প্রান্ত ডেস্ক:আসন্ন পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও শান্তিপূর্ণ হবে বলে আশা করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের পরবর্তী আন্ডার সেক্রেটারি টমাস শ্যানন।
বাংলাদেশে দুই দিনের সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদসহ সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনায় শ্যানন এ আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।
গতকাল মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র পররাষ্ট্র দফতরের আন্ডার সেক্রেটারি রাষ্ট্রদূত টমাস শ্যানন রবি ও সোমবার বাংলাদেশে তার প্রথম সফর সম্পন্ন করেছেন। এ সময় যুক্তরাষ্ট্রের দণি এশিয়াবিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেসাই বিসওয়াল ও উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী মানপ্রীত সিং আনন্দ তার সফরসঙ্গী ছিলেন। মনোনীত হওয়ার পর এই সফর তার প্রথম দ্বিপীয় সফরগুলোর একটি, যা বাংলাদেশের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের অংশীদারিত্বের গুরুত্ব তুলে ধরে।
রাষ্ট্রদূত শ্যানন প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী, ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা এবং সংসদ সদস্যদের পাশাপাশি বিরোধী দলগুলো, গণমাধ্যম, সুশীলসমাজ এবং শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাতের সময় রাষ্ট্রদূত শ্যানন জলবায়ু পরিবর্তন, উন্নয়ন এবং নারীর মতায়নে বৈশ্বিক নেতৃত্বে তার অবদানের জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি বাংলাদেশের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের গুরুত্বের কথা আবার ব্যক্ত করেছেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের অব্যাহত বন্ধুত্ব ও সমর্থনের বার্তা পৌঁছে দেন। বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদের সাথে সাক্ষাতে রাষ্ট্রদূত শ্যানন প্রাণবন্ত ও শক্তিশালী গণতন্ত্রে বিরোধী দলের ভূমিকার প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনের কথা জানান। সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার সাথে সাাতে রাষ্ট্রদূত শ্যানন ডিসেম্বরে অনুষ্ঠেয় পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণের সিদ্ধান্তের প্রশংসা করেন। রাষ্ট্রদূত শ্যানন তার প্রতিটি সাক্ষাতে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও শান্তিপূর্ণ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশে উন্নয়নের সাফল্য এবং এর চলমান প্রবৃদ্ধি দেখে রাষ্ট্রদূত শ্যানন অভিভূত হয়েছেন, যা বাংলাদেশকে দ্রুত নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করেছে। তিনি ইউএসএআইডির সহায়তায় একটি স্বাস্থ্যসেবা কিনিক পরিদর্শন করেন এবং বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজে (বি আইআইএসএস) বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিপীয় সম্পর্কের ওপর বক্তব্য রাখেন। সেখানে তিনি নিরাপত্তা, বাণিজ্য, উন্নয়ন, জলবায়ু পরিবর্তন, নারীর মতায়ন এবং চরমপন্থা মোকাবেলায় দুই দেশের চলমান সহযোগিতার কথা উল্লেখ করেছেন। রাষ্ট্রদূত শ্যানন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের সম্পর্কের দৃঢ়তা, সহিষ্ণুতা এবং সম্ভাবনা সময়ের সাথে বেড়ে চলবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 8 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ