সানি লিওনের অজানা ১০

প্রকাশিত: 11:16 AM, November 4, 2014

সানি লিওনের অজানা ১০

sunny-leone-98a-1-1024x576বিনোদন ডেস্ক: বলিউডে সানি লিওনের আত্মপ্রকাশ ঘটে বিগ বস শোতে তার জনপ্রিয় অধ্যায়ের পরই। এর পরই নানা ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে তিনি ভারতে ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা লাভ করেন। এ লেখায় থাকছে সানি লিওনের একান্ত ব্যক্তিগত ১০টি ভাবনা, যা ভাবেন তিনি নিজের জীবন ও ক্যারিয়ার নিয়ে। এক প্রতিবেদনে ব্যাপারটি তুলে ধরেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।
১. বিগ বস শোয়ের মাধ্যমে সানির ভারতে আত্মপ্রকাশ ঘটে। এরপর তিনি তার অনবদ্য স্টাইল ও আবেদনময়ী নানা কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে পরিচিতি লাভ করেন। সাবেক পর্ন তারকার খেতাব থাকার পরও তিনি নিজের ইতিবাচক ভাবমূর্তি গঠন করতে সক্ষম হন।
২. নানা সাক্ষাৎকারে সানি জানান, তিনি অনুভব করেন তরুণ প্রজন্মের ভালোবাসা ক্রমাগত পরিবর্তনশীল। আর এখানে তাদের সম্পর্কে ক্রমাগত ভাঙা-গড়া চলছে। আর এখানে একত্রে থাকার ক্ষেত্রে দায়িত্বশীলতার প্রয়োজনীয়তাকে তিনি অত্যন্ত গুরুত্ব দেন।
৩. সাম্প্রতিক বিচ্ছেদের হার বেড়ে যাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিয়ে একটি সুন্দর বিষয়। আর এখানে বিয়ের সময় বিষয়টির কথা চিন্তাও করা যায় না।
৪. পেশাদার জীবন ও ব্যক্তিগত জীবনের মাঝে তিনি কীভাবে পার্থক্য করেন এ প্রসঙ্গে সানি বলেন, কখনো কখনো এ দুটি বিষয় আলাদা রাখা খুবই কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। কারণ তিনি ও তার স্বামী উভয়েই খুব ব্যস্ত। কিন্তু আমরা খাওয়ার সময় উভয়েই মোবাইল ফোন বন্ধ রেখে সময়টি উপভোগ করার চেষ্টা করি। এ জন্য আমরা চেষ্টাও কম করি না। তবে বিষয়টি সহজ নয়।
৫. সাধারণ মানুষের মাঝে জনপ্রিয়তার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে সানি তার উত্তর কিছুটা ভিন্নভাবে দেন। তিনি বলেন, ‘আমার কাজের প্রতি মনোযোগটাই প্রধান। কিভাবে আরও ভালো করা যায়, এ বিষয়টিতেই আমি সবচেয়ে গুরুত্ব দেই। আর অন্য বিষয়ে আমার সঠিক ধারণা নেই। এটাই আমি সব সময় আশা করছিলাম আর তা এখন হাতের মুঠোয় পেয়েছি।’
৬. সানির স্বামী ড্যানিয়েল তার জন্য অত্যন্ত শক্ত একটি সমর্থন এবং এ বিষয়ে তিনি বলতে কখনোই দ্বিধা করেন না। সানি বলেন, ‘সে আমার জীবনে একমাত্র ব্যক্তি যে সমর্থন দিয়ে আমার স্বপ্নকে সফল হতে সাহায্য করেছে। আমরা বিষয়কে গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছি এবং আর পেছনে ফিরে তাকাইনি।’
৭. সানি ভারতের একজন ‘সেক্স সিম্বল’ হয়ে উঠেছেন, প্রসঙ্গে সানি বলেন, ‘সেক্স সিম্বল প্রশ্নে প্রত্যেক ব্যক্তির ভিন্ন ধারণা পোষণ করেন। আমার ক্ষেত্রে এটি আমার নিজের ত্বক ও দেহের বিষয়ে স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ। এটা আকারে যেমনই হোক না কেন।’
৮. প্রাপ্তবয়স্ক চলচ্চিত্রে অভিনয়ের ইতিহাস থাকার পরও প্রচলিত চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করার পর সমালোচনা প্রসঙ্গে সানি বলেন, তিনি বিশ্বাস করেন আরও কয়েকটা চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পর তার অভিনয়ের বিষয়টি প্রমাণিত হবে। বলিউডের চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশের জন্য তিনি ইতস্তত করেছেন কি না, এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমি খুবই ইতস্তত করেছিলাম এবং এ বিষয়ে ভয়ে ছিলাম। চলচ্চিত্র জগতে পদার্পনের আগে আমি অনেকের কাছ থেকেই হুমকিমূলক বার্তা পেয়েছিলাম। মার্কিন ভারতীয় অনেকেই তীব্র ঘৃণা করে আমাকে চিঠি লিখেছেন। সেসব বিষয় নিয়ে আমি আর এগোতে চাই না। তবে অনেকেই আমাকে সমর্থন করেছেন। আমি একটা ভিন্ন পৃথিবী থেকে এসেছি। আমার প্রাপ্তবয়স্ক দৃশ্য রয়েছে। আমি চলচ্চিত্রে প্রাপ্তবয়স্ক বিষয় দেখেছি। আমার কাছে এটাই পৃথিবী। এটা একজন যৌনআবেদনময়ী ব্যক্তি হিসেবে বিশ্বাসযোগ্য। আমি তেমন পোশাক পরি না আর যেকোনো মানুষের সঙ্গেও যাই না।’
৯. জীবনের নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে ভালোবাসেন সানি। ভারতে পদার্পণ কঠিন ছিল কি না, এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি ভাগ্যে উত্থান-পতনে বিশ্বাস করি। জীবনের ক্ষেত্রে আপনার অবশ্যই এমন সিদ্ধান্ত নিতে হবে, যা অন্যরা নাও নিতে পারে।’
১০. সানি দাবি করেন, তার কঠোর পরিশ্রমী অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করতে আরও কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করা প্রয়োজন। তিনি বলেন, ‘আমার মাত্র কয়েকটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে আর মানুষও আমার সঙ্গে পরিচিত হচ্ছে। তারা জানতে পারবে আমি একজন নিবেদিতপ্রাণ ব্যক্তি। এ জন্য কিছু সময় প্রয়োজন। আমি আমার অতীত বাদ দিতে পারব না। আমার জীবন যেমন, সে জন্য আমি দুঃখিতও নই। কিন্তু যখন আমার বিষয়ে কোনো ব্যক্তির মনোভাব পরিবর্তিত হবে তখনই কাজ সমাধা হবে। আশা করি তখন মানুষ বিশ্বাস করতে পারবে যে, আমি একজন ব্যক্তি এবং যখন তখন কাপড় খুলে ফেলি না কিংবা অন্য কারো স্বামীকে নিয়ে যাই না। আমি মজা করি, ভারতীয় সিনেমায় শুটিং করি এবং তা করব।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংবাদটি 14 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ